উইন্ডোজ ১০ এ ভার্চুয়ালাইজেশন

উইন্ডোজের সর্বশেষ সংস্করণ ১০। এতে এসেছে নতুন অনেক ফিচার। উইন্ডোজ ৭ এর পর মাইক্রোসফট সেই আইকনিক “স্টার্ট” বাতিল করার পর অনেক সমালোচনার মুখে পড়েছিল। যাই হোক, উইন্ডোজ ৭ থেকে শুরু করে উইন্ডোজে ভার্চুয়ালাইজেশন সাপোর্ট যুক্ত হয়। ১০ এর আগের ভার্সনগুলোতে এই ফিচার এনেবল করে নিতে হয়। যারা আগ্রহী, তারা নিশ্চয় জানেন কিভাবে সেটা এনেবল করতে হয়। আস্তে আস্তে সবকিছুই ভার্চুয়াল হয়ে যাচ্ছে। এই ধারাবাহিকতার সূত্র ধরে উইন্ডোজ ১০ এ এই ফিচার রাখা হয়েছে। চাইলে নেস্টেড ভার্চুয়ালাইজেশন ও করা যাবে। অর্থাৎ একটি ভিএম এর ভিতর আরেকটি ভিএম চালু রাখা। অবশ্য যেকোন ভার্চুয়ালাইজেশন করতে হলে লাগবে প্রযোজ্য হার্ডওয়্যার সাপোর্ট। আপনার ইন্টেল প্রসেসরে থাকতে হবে VT-x সাপোর্ট। উইন্ডোজ ১০ আছে ডায়নামিক মেমরি সাপোর্ট। কিন্তু নেস্টেড ভারচুয়ালে এ ফিচারটি পাওয়া যাবেনা। আগ্রহী বন্ধুরা চোখ রাখতে পারেন মাইক্রোসফট উইন্ডোজের ১০ এর লেটেস্ট বিল্ড এর উপরে।

বিস্তারিত / সুত্রঃ Windows Insider Preview: Nested Virtualization

Share with:


Leave a Reply

Connect with:



Your email address will not be published. Required fields are marked *