উইন্ডোজ স্টার্টাপ কে আরো দ্রুত করা

উইন্ডোজ ৭ বা ৮ ব্যবহারকারীরা হয়ত লক্ষ্য করেছেন যে কম্পিউটার চালু করার পরে অনেকগুলো প্রোগ্রাম একসাথে শুরু হয়ে যায়। এগুলোর কোনটাই হয়ত আপনি চান নি। মূলত এগুলো স্বয়ংক্রিয়ভাবে স্টার্টাপ সেটিং এ যুক্ত হয়ে নিজে নিজেই চালু হয়ে যায় কম্পিউটার অন করার পরে। এর সুবিধার চেয়ে অসুবিধা বেশি। কারন আপনার কম্পিউটারের মেমরি ব্যবহার করে এগুলো, তদুপরি কিছুটা ধীরগতির হয়ে যায়। এর সমাধান আছে অবশ্য। অনেক সফটওয়্যার সেটিংস এ গিয়ে এই অটো-স্টার্টাপ অপশন ডিসেবল করে দেয়া যায়। কিন্তু কিছু প্রোগ্রাম ঠিকি চালু হয়ে যায় কিন্তু সেটিংস এ আপনাকে এ অপশন অফার করেনা। আপনি চাইলে প্রতিটি প্রোগ্রামের সেটিংস এ গিয়ে খুঁজে দেখতে পারেন। তবে এটা ছাড়াও আরো একটি জায়গা থেকে এসব ডিসেবল করা যায়। সেটা উইন্ডোজ এ বিল্ট ইন। মূলত এখান থেকেই চাইলে সব কিছু নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন। এভাবে করলে আর আলাদাভাবে প্রতিটি প্রোগ্রামের সেটিংস এ যাবার প্রয়োজন নেই।

Start > Run > msconfig লিখে এন্টার চাপুন। এবারে দেখবেন ছোট একটি প্রোগ্রাম চালু হয়েছে। সেখানে বেশ কয়েকটি ট্যব রয়েছে। এবারে Startup ট্যব এ চাপুন। এই ট্যব এ আসার পরে অনেক কিছু দেখতে পাবেন। যেমন – স্টার্টাপ আইটেম, কমান্ড, লোকেশন ইত্যাদি। এখানে কিন্তু কিছু গুরুত্বপূর্ণ আইটেম আছে। যদি আপনি এখান থেকে কিছু মডিফাই করেন, তাহলে বেশ সতর্কতার সাথে করবেন। কেবলমাত্র ১০০% নিশ্চিত হয়ে আপনি এখান থেকে এক বা একাধিক আইটেম ডিসেবল করতে পারেন। যেগুলো আপনার পরিচিত মনে হচ্ছেনা, সেগুলো ছোঁবেন না। কারন উল্টোপালটা কিছু ডিসেবল করে হয়ত উইন্ডোজ এ সমস্যা দেখা দিতে পারে। তাই সতর্ক থাকবেন এখানে। নিশ্চিত হবার পরে আপনি কেবল টিক চিহ্ন টি উঠিয়ে দেবেন। আনসিলেক্ট করার পরে নিচের Apply বা OK বাটনে চাপুন। এবার এই কনফিগারেশন সেভ হয়ে যাবে। এরপর যখন আপনি কম্পিউটার রিস্টার্ট করবেন, দেখবেন সেসব অনাকাংখিত প্রোগ্রামগুলো আর অটোমেটিক স্টার্ট হচ্ছেনা। বলাবাহুল্য, আমরা কিন্তু কেবল এগুলোর স্টার্টাপ টা পরিবর্তন করেছি। এসব প্রোগ্রাম এখনো কিন্তু কম্পিউটারে ইন্সটল করা আছে। সম্পূর্ণভাবে রিমুভ করতে চাইলে আপনাকে কন্ট্রোল প্যানেলে গিয়ে আনইন্সটল করে নিতে হবে।

Share with:


Leave a Reply

Connect with:



Your email address will not be published. Required fields are marked *